গলি অশ্বগন্ধা গ্যামিজ 14Feb

গলি অশ্বগন্ধা গ্যামিজ

পুষ্টিভিত্তিক কোম্পানি হিসেবে গোলি, এসিভি চকলেট গুলো প্রায় সমগোত্রীয়, যার লক্ষ্য হচ্ছে সুখ এবং সুস্থতা। এটি অনেক সুস্বাদু। তাদের প্রধান লক্ষ্য আপনার দৈনন্দিন সাপ্লিমেন্ট উপভোগের মাধ্যমে আপনাকে সেরা অনুভব করতে সাহায্য করা। নতুন অশ্বগন্ধা চকলেট গুলোও তাই করে। আপনি প্রাচীন ভেষজের সকল সুবিধা সমূহকে এই চকলেটে পাবেন। এটি তৈরি হয়েছে সেরা নিরামিষাশী এবং গ্লুটেনমুক্ত উপাদানে।

অশ্বগন্ধা একটি প্রাচীন ভেষজ তা ঐতিহ্যগত আয়ুর্বেদিক ঔষধ তৈরিতে ব্যবহৃত হচ্ছে হাজার বছর ধরে। ব্যথা এবং জ্বালা যন্ত্রনা,অনিদ্রা,দুশ্চিন্তা এবং অন্যান্য আরও অনেক অসুস্থতার চিকিৎসা হিসেবে এই ভেষজ শতাব্দী ধরে বিশ্বস্ত। কারন এটা অভিযোজন কারী, দেখা গেছে এটি আপনার দুশ্চিন্তা এবং শরীরকে ভালো ভাবে নিয়ন্ত্রন করে।

অশ্বগন্ধার প্রভাব এবং সুবিধাসমূহ নিয়ে প্রচুর গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে। পরবর্তীতে এর শীর্ষ সুবিধা সমূহকে নিয়ে আলোচনা করা হবে তাতে আপনারা বুঝতে পারেন গোরি অশ্ব চকলেট খেলে কি উপকার হবে।

কে.এস. এম. -৬৬ অশ্বগন্ধা চিকিৎসা গত ভাবে প্রমানিত হয়েছে-

  • দুশ্চিন্তা এবং টেনশন কমাতে সাহায্য করে।
  • স্মৃতিশক্তি এবং মনোযোগ উন্নত করতে সাহায্য করে।
  • সহনশীলতা,শক্তি, পেশীর আকার গঠনে সহায়ক
  • ভালো ঘুম হয়
  • শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমাতে এবং স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখতে সাহায্য করে।

 

অশ্বগন্ধা চকলেটের সুবিধাসমূহ কি কি ?

দৈনন্দিন গ্ৰহনে এই চকলেট গুলোর অনেক সুবিধা। এইজন্যই এখানে এর সুবিধাসমূহ আলোচনা করতে যাচ্ছি যাতে আমি যে উপকারিতা পেয়েছি আপনারাও তা পেতে পারেন।

দুশ্চিন্তা কমায় এবং প্রশান্তি বাড়ায় -

  • আধুনিক গবেষণা অশ্বগন্ধাকে যুক্ত করেছে “স্ট্রেস হরমোন” কর্টিসল এর সাথে। এটি ঘুরে ফিরে আমাদের শরীরের প্রশান্তিকে বাড়ায়। এটি তারা দীর্ঘস্থায়ী স্ট্রেস এ ভোগেন তাদের জন্য উপকারী।

ব্যয়াম পরবর্তী সম্ভাব্য সহনশীলতা এবং পেশীশক্তি বাড়ায়------

  • এই সাপ্লিমেন্ট গ্ৰহন করা অবস্থায় আপনি উল্লেখযোগ্য শক্তিবৃদ্ধির এবং পেশীর ভর লক্ষ্য করে থাকবেন।

মানসিক স্বাস্থ্য উন্নতিকরন-----

  • যেহেতু এটা স্ট্রেস কমায়, তাই এটি সম্ভবত আপনার মন মেজাজ ভালো রাখতে সাহায্য করবে।

স্বাস্থ্যকর ঘুমে সাহায্য করে----

  • অশ্বগন্ধা বহুবছর ধরে ঘুমের সহায়ক হিসেবে কাজ করে।যদি উদ্বেগ ও অনিদ্রায় ভূগছেন তাহলে প্রতিদিন এটি গ্ৰহনে আপনার নিদ্রাভ্যাসে উন্নতি লক্ষ্য করবেন।

শারীরিক কর্মক্ষমতা এবং সহনশীলতা

  • এই চকলেট খেয়ে আপনি আ্যথলেটিক কর্মক্ষমতা এবং সহনশীলতা বাড়াতে পারেন।

স্বাস্থ্যকর ওজন রক্ষায় সহায়তা করে

  • এই চকলেট অতিরিক্ত খাবার গ্ৰহন এবং জীবনের দুশ্চিন্তাগ্ৰস্ত সময়ে ওজন বাড়তে দেয় না।

নিরাপদ স্বাস্থ্য সুনিশ্চিত করে

  • অশ্বগন্ধা শারীরিক প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় রোগের বিরুদ্ধে।এটি কোষের মধ্যস্থ নিরাপত্তা নিশ্চিত করে ।

চেতনা ও স্মৃতিশক্তি বাড়ায়

  • দৈনন্দিন গ্ৰহনে এটি স্মৃতিশক্তি, মনোযোগ এবং তথ্য প্রক্রিয়ার গতিকে ত্বরান্বিত করে।

যৌন কার্যকারিতা বাড়ায়

  • এই সুপার ভেষজগুণ চকলেট টিতে থাকায় দেখা গেছে, নারী ও পুরুষের মধ্যে যৌন সুস্থতা এবং কার্যকারীতা উন্নত করে।

 

কে.এস.এম. ৬৬ অশ্বগন্ধা নির্মাতারা এটির উৎপাদন প্রক্রিয়া সমূহকে একটি উৎপাদন ব্যবস্থার অধীনে নিয়ে এসেছে যাতে এথেকে উচ্চমানসম্পন্ন এবং উন্নত ফলাফল পাওয়া যায়।তারা একটি টেকসই সরবরাহ শৃঙ্খলাবদ্ধ করেছে এবং একটি অনন্য সবুজ নিষ্কাশন ব্যবস্থা তৈরি করেছে তার সাহায্যে বাজার জাতকরনের পর ও এর ভেষজ সমূহের উপকারিতা অক্ষূন্ন থাকবে। এটি সর্বাপেক্ষা সর্বোন্নত জৈব উপলভ্য নির্যাস। ঐতিহ্যগত এবং আধুনিক বিজ্ঞান উভয়েই, অশ্বগন্ধা গাছের শিকড় (পাতা নয়)ব্যবহারে উৎসাহ দিয়েছে এর অভিযোজিত উপাদানের জন্য। কে.এস.এম.-৬৬ শুধু মাত্রই গাছের শিকড় ব্যবহার করে এবং অন্য কোন অংশ ব্যবহার করে না।

 

ভিটামিন-ডি

একটি চর্বি দ্রবনীয় ভিটামিন যা হাড্ডি, দাঁত ও পেশীর এবং একটি স্বাস্থ্যকর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে অপরিহার্য ভূমিকা পালন করে।

পেকটিন

বাজারের অন্যান্য চকলেট যেখানে তৈরি হয় জেলাটিন দিয়ে সেখানে গোলি এসিভি চকলেট তৈরি হয় পেকটিন, ফলের খোসা এবং এটি নিরামিষাশী হয় তাতে বিভিন্ন জীবনধারা এবং খাদ্যাভ্যাসে উপভোগ্য হতে পারে।

 

পার্শপ্রতিক্রিয়া, নিরাপত্তা এবং মাত্রা

  • গোরি অশ্বগন্ধা হচ্ছে নিরাপদ,গ্লুটেনমুক্ত এবং প্রাকৃতিক। প্রস্তুতকারকরা ২-৪টি চকলেট প্রতিদিন (১-২টা চকলেট প্রতিদিন দুই বার),তা খাবার আগে বা পরে খেতে পরামর্শ দেন।
    ২-৪টি গোরি অশ্বগন্ধা চকলেট খাওয়া মানে প্রতিদিন ৩০০-৬০০ মি.গ্ৰা. অশ্বগন্ধা গ্ৰহন করা।
  • বেশিরভাগ গবেষণায় দেখা গেছে যে, অশ্বগন্ধা গ্ৰহনের মাত্রা ২৫০-৬০০ মি.গ্ৰা. এর মাঝে থাকলে তা সবচেয়ে বেশি কার্যকরী হয়।
  • আমাদের এটাও মনে রাখতে হবে যে, বেশি পরিমাণে অশ্বগন্ধা গ্ৰহনে(১০০০ মি.গ্ৰা. প্রতিদিন অথবা বেশি) পেট খারাপ,ডায়রিয়া এবং বমিবমি ভাব হতে পারে।
  • গর্ভবতী মহিলাদের এটি গ্ৰহন করা উচিত নয়।কারন অতিমাত্রায় অশ্বগন্ধা গ্ৰহন হরমোন লেভেলের উপর প্রভাব ফেলে যা অকালজাত শিশু ভূমিষ্ঠ হওয়ার কারন হতে পারে।
  • উপরন্তু, ডায়াবেটিস রোগীদের রক্তে শর্করার পরিমাণ কমায় এই অশ্বগন্ধা।
  • ডায়াবেটিসের ওষুধের পাশাপাশি অশ্বগন্ধা গ্ৰহনে অনেক রোগীদের হাইপোগ্লাইসেমিয়া দেখা দেয়।

সেইজন্য এটি গ্ৰহনের পূর্বে আপনার চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে বলা হয়।

 

গোলি অশ্বগন্ধা চকলেট এর ব্যপারে প্রায় ই জিজ্ঞাস্য প্রশ্নসমূহ

গোলি অশ্বগন্ধা চকলেট এবং গোলি আপেল সাইডার ভিনেগার চকলেট কি একসাথে খাওয়া যাবে?

  • আপনি গোলি অশ্বগন্ধা এবং গোলি এসিভি চকলেট দুটোই একসাথে খেতে পারেন। গোলি পুষ্টিবিদগন এই দুই পণ্য এমনভাবেই তৈরি করেছেন যে এরা একে অপরের পরিপূরক হিসেবে কাজ করে এবং গ্ৰাহকগন এর পূর্ণ উপকারিতা পান।

গোলি অশ্বগন্ধা চকলেট গ্ৰহনের সঠিক সময় কোনটি?

  • গোলি কোম্পানি চকলেট গ্ৰহনের সঠিক সময় হিসেবে সকাল বেলার উপর জোর দিয়ে থাকে যাতে আপনি সারা দিনের জন্য যথেষ্ট শক্তি পেয়ে যান ।যাই হোক, আপনি যেসময় ইচ্ছে সেসময় এই সাপ্লিমেন্ট গ্ৰহন করতে পারেন। এটা ক্যাফেইনমুক্ত তাই আপনার ঘুম-চক্রে কোন ব্যঘাত ঘটবে না। আরও একটি সুবিধা হচ্ছে এটি আপনি খাবারের আগে অথবা পরে যেকোন সময় খেতে পারেন।

এটি কাজ শুরু করতে কতটা সময় লাগে?

  • গোলি অশ্বগন্ধা চকলেট সপ্তাহের যেকোন সময় খাওয়া যাবে এর কাজ শুরু করার জন্য, এটা নির্ভর করে ব্যক্তিবিশেষের উপর। ৬০জন ব্যক্তির উপর,যারা৩০০মি.গ্ৰা.অশ্বগন্ধা গ্ৰহন করেছে, গবেষণায় দেখা গেছে যে,১০ সপ্তাহে তাদের ঘুমের ব্যপক উন্নতি হয়েছে।

দিনে কয়টা চকলেট খাওয়া যাবে?

  • পরামর্শ অনুযায়ী দিনে ১-২টা চকলেট ২-৩বেলা খাওয়া যাবে। এটা অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে,একই মাত্রা সবার জন্য প্রযোজ্য নয়।

গোলি চকলেট কি ওজন কমানোর উপর প্রভাব বিস্তার করে?

  • গোলি অশ্বগন্ধা চকলেটে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে আ্যন্টিঅক্সিডেন্ট যা ভালো থাকা এবং ওজন কমানোর জন্য জরুরি।আ্যন্টিঅক্সিডেন্ট বিপাকীয় হার বৃদ্ধির জন্য এবং প্রদাহ কম করার জন্য খুবই উপকারী।এটা একসময় জমে থাকা চর্বি দ্রবনে সাহায্য করে।

 

অনেক উপাদানই গোলি অশ্বগন্ধাকে একটি উন্নত পণ্যে রূপান্তরিত করেছে। এটি জৈব,জি-এম-ও মুক্ত, উদ্ভিদভিত্তিক, নিরামিষাশী এবং কৃত্রিম মিষ্টি সৃষ্টিকারী ও প্রিজারভেটিভ মুক্ত। ভিটামিন এনজেল নামের একটি সংগঠন, যাদের লক্ষ্য হচ্ছে শিশুদের অপুষ্টি , তাদের জীবন রক্ষাকারী ভিটামিন ও মিনারেল দিয়ে কমিয়ে আনা । এই কোম্পানি এই সংগঠনটিকে সমর্থন করে। উপরন্তু অনেক গবেষণা এই পন্যের সমর্থক।

প্রতিশ্রুতিশীল গবেষণার কারনে এবং নিরাপত্তার দিক থেকে বিবেচনা করলে কারো কারো জন্য এই গোলি অশ্বগন্ধা আদর্শপূর্ণ হতে পারে।যদি কেউ প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী ঔষধের বদলে এটি গ্ৰহনের মাধ্যমে নিজেদের চিন্তা,অনিদ্রা, স্মৃতিশক্তি, শক্তিবৃদ্ধি এবং রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা উন্নত করতে চায়।

ঔষধ ও সাপ্লিমেন্ট ছাড়া স্ট্রেস কমানোর অন্যান্য উপায়গুলো হচ্ছে, ধ্যান,ব্যায়াম এবং পছন্দের মানুষগুলোর সাথে সময় কাটানো ।

 

দাম এবং কিনার জন্য এইখানে ভিজিট এবং ক্লিক করুন